ওপার বাংলা
মমতাকে ডি’লিট দিচ্ছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 26 October, 2017 at 4:56 PM
মমতাকে ডি’লিট দিচ্ছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়শুধু মুখ্যমন্ত্রী বলেই নয়, সাহিত্যিক-সমাজসেবী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ডি’লিট দেবে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, আগামী ১১ নভেম্বরের সমাবর্তনে মুখ্যমন্ত্রীকে ডি’লিট দেওয়া হবে। প্রসঙ্গত, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে এই প্রথম কেউ রাজ্য প্রশাসনের শীর্ষপদে থাকাকালীন এই সম্মান পাচ্ছেন।
এর আগে বিধানচন্দ্র রায় এবং জ্যোতি বসু ডি’লিট পেয়েছিলেন। কিন্তু তারা তখন মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন না।
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রের খবর, ওইদিনের বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর নাম প্রস্তাব করেন স্কুল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান সুবীরেশ ভট্টাচার্য। সেই প্রস্তাব সমর্থন করেন কলেজ সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান দীপক কর।
উপাচার্য সোনালি চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘সিন্ডিকেট এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। মুখ্যমন্ত্রীকে ডি’লিট দেওয়ার পাশাপাশি আসন্ন সমাবর্তনে বেশ কয়েকজন সাবেক অধ্যাপককে সম্মান জানানো হবে।’’
বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবি, ডি’লিট গ্রহণের প্রস্তাবে ইতিমধ্যেই সম্মতি জানিয়েছেন মমতা। তিনি ওই সম্মান পাচ্ছেন তার সাহিত্যকীর্তি এবং সমাজসেবায় অবদানের জন্য। এ বছরের সমাবর্তনে প্রধান অতিথিও মুখ্যমন্ত্রী।
প্রসঙ্গত, আসন্ন সমাবর্তনে কাউকে ডিএসসি দেবে না কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়।
ভারতের এবেলা পত্রিকার খবর, ইংরেজ আমলে বিধানচন্দ্র ডি’লিট পেয়েছিলেন ১৯৪৪ সালে। তার বেশ কিছু বছর পরে তিনি মুখ্যমন্ত্রী হন। জ্যোতি বসু ওই সম্মান গ্রহণ করেন মুখ্যমন্ত্রিত্ব ছাড়ার কয়েক বছর পরে, ২০০৬ সালে। ফলে মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন মমতাই প্রথম ব্যক্তি, যিনি ডি লিট পাচ্ছেন।
এই ঘটনা প্রসঙ্গে ‘কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি’র নেতা রামপ্রহ্লাদ চৌধুরী বলেন, ‘‘বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট এই প্রস্তাব গ্রহণ করেছে। আমাদের কিছু বলার নেই। তবে এটি রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়। ফলে মুখ্যমন্ত্রী কার্যত নিজেই নিজের কাছ থেকে সম্মান পেতে চলেছেন।’’
বাম প্রভাবিত ‘পশ্চিমবঙ্গ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি’র নেতা শ্রুতিনাথ প্রহরাজ বলেন, ‘‘এটি নজিরবিহীন ঘটনা। এর আগে হয়নি। তবে এই সিদ্ধান্তে অবাক হচ্ছি না। মুখ্যমন্ত্রীকে ডি’লিট দেওয়া নিঃসন্দেহে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের গরিমা এবং ঐতিহ্যের পরিপন্থী।’’
সূত্রের খবর, পুজোর আগে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মসমিতির বৈঠকেও মুখ্যমন্ত্রীকে ডি’লিট দেওয়ার প্রস্তাব তুলেছিলেন ‘সরকারপন্থী’ অধ্যাপকদের একাংশ। কিন্তু সেই প্রস্তাব খারিজ করে দেন অন্যেরা।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft