ওপার বাংলা
টুইটারে ডিপি কালো করে মমতার প্রতিবাদ
কাগজ ডেস্ক :
Published : Tuesday, 7 November, 2017 at 3:13 PM
টুইটারে ডিপি কালো করে মমতার প্রতিবাদমানুষের স্বার্থে মুক্তকণ্ঠে তিনি যেমন ঝাঁঝালো বক্তৃতা করতে পারেন, ঠিক তেমনি তাঁর লেখনীতেও প্রতিবাদের ভাষা ফুটে ওঠে। মানুষের মনকে নাড়া দিয়ে যায়।
গত বছর ৮ নভেম্বর রাতে নোট বাতিল নিয়ে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি প্রথম প্রতিবাদ করেন। শুধু তাই নয়, ২০ নভেম্বর তিনি নোট বাতিলের বিরুদ্ধে একটি কবিতা লেখেন। কবিতাটির নাম দেন ‘ছিঃ’। লিখেছিলেন, ‘নোট বাতিলের বাতুলতা/গরিব মানুষের আকুলতা/মানসিক বিষাদগ্রস্ত মানবিক প্রাণ।/ নবান্ন? আসার আগেই অগ্রহায়ণের বিসর্জন।’
বুধবার নোট বাতিলের এক বছর পূর্তি হচ্ছে। ওই দিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বাংলা জুড়ে কালাদিবসের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন। সোমবার সকালে সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনব প্রতিবাদ করেছেন। তার টুইটারের ‘ডিপি’ কালো করে দিয়েছেন। লিখেছেন, ‘আসুন, সকলে মিলে টুইটারের ছবি কালো করে দিই।’
মমতার এই টুইট স্বাভাবিকভাবেই নজর কেড়েছে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের। এই প্রতীকী প্রতিবাদকেই নোটবন্দীর প্রতিবাদে বিরোধীদের কর্মসূচির অন্যতম মুখ হিসেবে তুলে ধরা হচ্ছে। টুইটারে মমতা লিখেছেন, নোটবন্দী এক বিপর্যয়। অর্থনীতি–ধ্বংসকারী এই কেলেঙ্কারির বিরুদ্ধে ৮ নভেম্বর কালাদিবস পালন করবে তৃণমূল কংগ্রেস।
সোমবার সকালেই টুইট করে জানিয়েছেন, ‘নোটবন্দী এক বিপর্যয়। অর্থনীতি–ধ্বংসকারী এই কেলেঙ্কারির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হওয়া প্রয়োজন। ৮ নভেম্বর কালাদিবস। আসুন, ওই দিন আমরা সবাই আমাদের টুইটারের ছবি কালো করে দিই।’  জিএসটি নিয়েও টুইটারে সরব হয়েছেন মমতা। কটাক্ষ করেছেন, জিএসটি হল গ্রেট সেলফিশ ট্যাক্স। জনগণকে হয়রান করতে, মানুষের চাকরি কেড়ে নিতে, ব্যবসার ক্ষতি করতে, অর্থনীতিকে শেষ করে দিতে। পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ এই সরকার।
অন্যদিকে তৃণমূলের কর্মীরা নেত্রীর নির্দেশমতো কালাদিবস পালনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। হোর্ডিং, পোস্টারে লেখা হয়েছে— খামখেয়ালি মোদির নোটবন্দীর বর্ষপূর্তিতে ৮ নভেম্বর কালাদিবস পালন করুন, ব্যক্তি–স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করে মোবাইল ফোনে আধার কার্ড বাধ্যতামূলক কেন? স্বৈরাচারী নরেন্দ্র মোদি জবাব দাও, নোটবন্দী ও জিএসটি–র জন্য দেশ জুড়ে অর্থনৈতিক বিপর্যয়, স্বৈরাচারী সিদ্ধান্তে দেশের সাধারণ মানুষ বিপন্ন, খামখেয়ালি মোদি–রাজের বিরুদ্ধে সমস্ত মানুষ এক হও। ওই দিন শুধু জেলাতে নয়, কলকাতাতেও মিটিং–মিছিল হবে।
রাজ্য নেতারা থাকবেন। জেলাতে বিধায়ক ও সাংসদদের থাকতে বলা হয়েছে। বেলা দুটো থেকে তিনটে পর্যন্ত কালাদিবস পালন করা হবে। ৮ থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত জনসংযোগ যাত্রার ডাক দেওয়া হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft