জাতীয়
আমরা নির্বাচনে এবং গণঅভ্যুত্থানেও বিশ্বাস করি : দুদু
কাগজ ডেস্ক :
Published : Tuesday, 14 November, 2017 at 12:00 AM
আমরা নির্বাচনে এবং গণঅভ্যুত্থানেও বিশ্বাস করি : দুদুবিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, আমরা যেমন নিয়মতান্ত্রিক রাজনীতি ও নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাস করি, তেননি আবার নির্বাচনে এবং গণঅভ্যুত্থানেও বিশ্বাস করি। তিনি সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, বেগম খালেদা জিয়া একটা মাত্র সমাবেশ করেছেন, আর তাতেই ক্ষমতা হারানোর ভয়ে আপনাদের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। এই একটা সমাবেশের অবস্থা বুঝতে পারছেন তো?
মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
জাতীয়তাবাদী কৃষকদল আয়োজিত ‘মহান জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে এ আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কৃষকদলের সহ-সভাপতি নাজিম উদ্দিন, মেহেদী আহমেদ, এম এ তাহের, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তকদির হোসেন জসিম, ওলামা দলের সভাপতি মাওলা আব্দুল মালেক, সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. নেছারুল হক, কৃষক দলের কেন্দ্রীয় নেতা মাইনুল ইসলাম প্রমুখ।
দুদু আরো বলেন, আমরা কোন দিকে যাবো আমাদের নেত্রী ১২ তারিখের সমাবেশে সেটার নির্দেশনা দিয়েছেন। আমরা শেখ হাসিনার অধীনে কোনো নির্বাচন করবো না। তাহলে কীভাবে করবো? ১৯৯১, ৯৬, ২০০১ সালের মতো নির্বাচন করবো আর চাইলে ২০০৮ মতো নির্বাচন করবো।
তিনি উপস্থিত নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘গুম, খুন, অপহরণ যদি রোধ করতে হয়, লুটপাট বন্ধ করে অর্থনীতিতে যদি সু-বাতাস ফিরিয়ে আনতে হয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের লুট হওয়া টাকা যদি ফিরিয়ে আনতে এবং সেই সাথে বিচার ব্যবস্থার প্রতি যদি মানুষের আস্থা ফিরিয়ে আনতে হয় তাহলে বেগম জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাতে হবে। এছাড়া দ্বিতীয় কোনো পথ খোলা নেই।
দুদু আরও বলেন, আমরা কি ঠেকায় পড়ছি যে, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন করবো? তিনি বলেন, শেখ হাসিনার অধীনে কোনো নির্বাচন হবে না, হতে দেয়া হবে না। এটা হচ্ছে ৭ই নভেম্বরের চেতনার আরেকটি দিক। ৭ই নভেম্বর বাংলাদেশের দ্বিতীয় স্বাধীনতা দিবস। ৭ই নভেম্বর বহুদলীয় গণতন্ত্রের পথ প্রশস্ত করেছিলো।
তিনি সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ১২ নভেম্বরের জনসভায় বেগম জিয়া যে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন সেটা সফল হলে আন্দোলনের প্রয়োজন নেই, আর না হলে আন্দোলন কত প্রকার এবং কি কি এবার বিএনপি এবং ২০ দল মাঠেই সেটি দেখিয়ে দিবে।





সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft