দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
কেশবপুরে ভূমিদস্যুদের কবল থেকে সরকারি খাল উদ্ধার
আব্দুল্লাহ আল ফুয়াদ, কেশবপুর (যশোর) থেকে :
Published : Thursday, 7 December, 2017 at 5:17 AM
কেশবপুরে ভূমিদস্যুদের কবল থেকে সরকারি খাল উদ্ধার কেশবপুরের বিভিন্ন সরকারি খালের জমি দখল ও খালের  উপর অবৈধভাবে স্লুইচ গেট নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে ঘের করে আসছিলেন কতিপয় প্রভাবশালী ব্যবসায়ী। ফলে, বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ হয়ে উপজেলার বিভিন্ন নিম্ন এলাকা প্রতি বছর বন্যা কবলিত হয়ে পড়ছিল।  এ কারণে ভুক্তভোগীরা ওই সকল ঘের ব্যবসায়ীর দখলকৃত সরকারি খাল অবমুক্ত করার দাবিতে প্রতিবাদ ও মানববন্ধনসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করে। পানি নিষ্কাশন ও কৃষি কাজে অসুবিধা  হওয়ায়  জুলাই মাসে জনস্বার্থে দায়ের করা ৯৪৪৩/১৭ নং  রিট আবেদনের চূড়ান্ত শুনানি করে গত ৭ নভেম্বর বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জেবিএম হাসানের বেঞ্চ বোয়ালিয়ার খাল থেকে অবৈধ বাঁধ অপসারণের নির্দেশ দেন। হাইকোর্টের নির্দেশে উপজেলার ত্রিমোহিনী ও সাগরদাড়ী ইউনিয়নে অবস্থিত বিল বোয়ালিয়ার ৩শ’১০ ফুট সরকারি খালের জমি ও খালের উপর দেয়া অবৈধ স্লুইচ গেট উচ্ছেদ করে খালটি অবমুক্ত করা হয়েছে।  মঙ্গল ও বুধবার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কবীর হোসেন উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এসময় উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আলমগীর হোসেন, থানার উপ-পরিদর্শক তারিকুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ এলাকার শ’ শ’ উৎসুক জনতা উপস্থিত ছিল। এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কবীর হোসেন বলেন, বিল বোয়ালিয়ার খালের ৩শ’১০ফুট জমি অবৈধভাবে দখল এবং একটি স্লুইচ গেট নির্মাণ করে সেলিমুজ্জামান আসাদ নামে এক ব্যক্তি ঘের ব্যবসা করে আসছিলেন। হাইকোর্টর নির্দেশে মঙ্গল ও বুধবার দু’দিনব্যাপী কেশবপুরে ভূমিদস্যুদের কবল থেকে সরকারি খাল উদ্ধার অভিযান চালিয়ে খালের জমি দখলমুক্ত ও স্লুইচ গেট উচ্ছেদ করা হয়েছে।  ইতিপূর্বে কয়েকবার স্লুইচ গেটটি উচ্ছেদ করা হয়েছিল। ওই স্লুইচ গেটের সাথে এবার সরকারি খালের দখলকৃত ৩শ’১০ ফুট জমি অবমুক্ত করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে উপজেলার দখলকৃত সকল সরকারি খাল উদ্ধার করা হবে। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানূর রহমান জানান, বন্যা প্রতিরোধে কেশবপুরের সকল সরকারি খাল ধারাবাহিকভাবে উদ্ধারপূর্বক খনন করা হবে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft