মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
পতে পতে চান্দা, বারোয় গ্যালো জানডা
Published : Tuesday, 9 January, 2018 at 12:56 AM
পতে পতে চান্দা, বারোয় গ্যালো জানডাএক টিরাফিক পুলিশ রাত্তিরি ঘুমির মদ্দি এই দাড়া, এই দাড়া কইয়ে গ্যাঙায় উটেচে। তার ক্যাকানো শুনে পাশতে তার বউ ধড়মড় কইরে ঠেলে উটেচে কি হলো দেকার জন্যি। টিরাফিক পুলিশ এই দাড়া, এই দাড়া কইয়ে গ্যাঙায়েই যাচ্চে। বউ তার গা ধইরে ঝাকায়ে ঝাকায়ে কচ্চে ওগো কি হলো তুমার, কারে দাড়াতি কচ্চো ? বউয়ের ঝাকা খাইয়ে ঘুম ভাইঙ্গে গেচে ঐ পুলিশির। চোক রাঙা কইরে কচ্চে ও আমি বাড়ি ঘুমোয় ছিলাম ! বউ কচ্চে তালি তুমি কি মনে করিচাও ? কনে ছিলে তুমি ? টিরাফিক পুলিশ কচ্চে ও আল্লা আমি ঘোমের ঘোরে দেকলাম রাস্তায় দাড়াই আছি। এট্টা টিরাক চান্দা না দিয়ে টাইনে চইলে যাচ্চিল। তাই দাড়া দাড়া কইরে গ্যাঙায়ে থামানোর চিস্টা দিচ্চিলাম। বউ কপাল চাপড়ায়ে কচ্চে ওরে আমার কপালরে সারাদিন যা করো ঘোমের ঘোরে সেই চান্দাই তুলতিচাও। পতে উটলি চান্দা দিতি দিতি জান কয়লা। ইজিবাইক রাস্তায় বারোলি এ মোড় ও মোড়ে দাড়ায় আছে স্লিপির টাকা তুলার নামে এক হাতে একখান নড়ি নিয়ে। তাগের দেকা মিললি বউনি হোক বা না হোক স্লিপির টাকা দিয়াই লাগবে। না হলি রোডে উটা বন্দ।
এক রাস্তায় চান্দা দিলি হবে না। রাস্তা বদলালি আবার স্লিপ পাল্টাতি হবে। ইডা তো গ্যালো পাবলিকির চান্দা। সরকারি লিবাসের চান্দা আইল্যান আর হাইল্যানের মানবিচ নেই। সবার চোকির সুমকি দাড়ায় থাকপে চাপনিতি হাতে গুইজে না দিলি ঢুকা যাবে না। ফেলকড়ি মাকো তেল। টাকা গুইজে দিলি রুগী যাচ্চে কইয়ে যাওয়ার জন্যি ছাইড়ে দেবে। অন্যরা তাগায় তাগায় দ্যাকপে। চান্দার কচনে কি শুদো ইজিবাইক ? অটো রিক্সা, অটো ভ্যান, থিরি হুইলার, নসিমন, আলম সাদু, মাহেনরো, টিরাক, পিকআপ কোন কিচুই বাদ নেই এই চান্দার হাতেত্তে। এক এক বাহন চান্দার স্টাইল আলাদা। রোডে চলতি হলি এই টাকা দিয়াই লাগবে। না হলি হাত পা গুটায় বাড়ি বইসে থাকো। পা বাড়ালিই লাঠি, বাশ কাঠ লাল পতাকার ঠেকনো দেবেই। নতুন কইরে বুদ্দি বাইরোয়েচে ভোটের মতো সীমানা নিদ্দারন কইরে দিয়া। এক এলেকার গাড়ী আরেক এলেকায় যাতি পারবে না। এক রাস্তার গাড়ী আরাক রাস্তায় চলতি পারবে না। রুট পারমিটির ঠেকনো দিলি বাচার উপায় এট্টায় চান্দা। রাস্তা বানায়ে সরকার কারো কাচে লিজ দেয় কিনা কিডা কবে? মানুস যদি বাসে না চইড়ে ইজিবাইক কিম্বা মাহেনরো চইড়ে যাতি চায় সিডা সম্বব না। বাসআলাগের লোক ককনো মালিক সমিতি ককনো শমিক সমিতি নানান অযুহাতে পথ আটকাবে। আরাক বিপোদ মোটর সাইকেলআলাগের। মোড়ে মোড়ে চেক করার নামে বুজবাজ। গাড়ির কাগজ চেক তরে না পকেটের টাকা চেক করে আল্লাই ভালো কতি পারবে। যাগের এ সব দেকার কতা তারাই নাই টাওয়ার পুইতে বইসে আচে আসলিই নেটওয়ারে ধরা। দুক্কির কতা কবো কারে,শোনবে কিডা।
অভাগা আক্কেল চাচা, মোবাইল নং-০১৭২৮-৮৭১০০৩ ই-মেইল :  cacaakkel@gmail.com

শব্দার্থ : টিরাফিক=ট্রাফিক, রাত্তিরি=রাত্রে, মদ্দি=মধ্যে, গ্যাঙায়=চিৎকার করে, চোক=চোখ, রাঙা=লাল টিরাক=ট্রাক, পতে=পথে, উটলি=উঠলে, আইল্যান=আইল্যান্ড, হাইল্যান= হাইল্যান্ড, দুক্ক=দুখ।





সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft