রবিবার, ০৫ এপ্রিল, ২০২০
সারাদেশ
‘খুনিদেরকে এরশাদ রাজনীতি করার সুযোগ দিয়েছিলেন’
দিনাজপুর সংবাদদাতা :
Published : Sunday, 17 March, 2019 at 9:15 PM
‘খুনিদেরকে এরশাদ রাজনীতি করার সুযোগ দিয়েছিলেন’১৯৭৫’র পরবর্তী সরকারগুলোর সময়ে বাংলাদেশে দুর্বৃত্তায়ন হয়েছে বলে দাবি করেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, রাজনীতিকে কলুষিত করেছে, সমাজকে ধ্বংস করেছে, শিক্ষাজীবনকে বিঘ্নিত করেছে, কোন কিছু বাদ দেয় নি। ব্যবসা-বাণিজ্য, অর্থ, স্বাধীনতা বিরোধীদের হাতে তুলে দিয়েছে। যারা প্রতিনিয়ত বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে। বাংলাদেশকে গোল্ডেন ট্রাইএঙ্গেল বানানোর চেষ্টা করা হয়েছে।
তিনি বলেন, যুবসমাজের হাতে মাদক ও অস্ত্র তুলে দেয়া হয়েছে। বিঘ্নিত জাতি হিসেবে তৈরি করে দেয়া হয়েছে। খুনিদেরকে পূর্ণবাসন করা হয়েছে। যেই খুনিরা বলেছিল আমি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছি সেই খুনিদেরকে জিয়াউর রহমান ফুলের মালা দিয়েছেন। সেই খুনিদেরকে এরশাদ রাজনীতি করার সুযোগ দিয়েছিলেন। খালেদা জিয়া সেই খুনিদেরকে পার্লামেন্টে- নিজামী ও মুজাহিদকে মন্ত্রী বানিয়েছেন।
রবিবার (১৭ মার্চ) দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের এম আব্দুর রহিম মিলনায়তনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। দিনাজপুর প্রেস ক্লাব এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে ধারণ করার ফলে শান্তির দেশ হিসেবে পরিচিত, জঙ্গিবাদ দমনে পৃথিবীতে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। যে জাতি একদিন দুর্যোগ, খরা কবলিত দেশ হিসেবে পরিচিত ছিল সে জাতি এখন উন্নয়নের রোল মডেল। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার করতে পেরেছি, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও রায় কার্যকর করেছি, পুরো বিশ্বে বাংলাদেশ এখন সম্মানিত হচ্ছে।
খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, যুদ্ধের সময় পাকিস্তানি বাহিনী বঙ্গবন্ধুকে হত্যার জন্য ফাঁসির মঞ্চ তৈরি করেছিল এবং কবর পর্যন্ত প্রস্তুত করা হয়েছিল কিন্তু পারে নি। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, আমাকে হত্যা করতে পারবেন কিন্তু বাংলার স্বাধীনতাকে দাবিয়ে রাখতে পারবেন না। বাংলার মানুষের উপর তার যেমন বিশ্বাস ছিল তেমনি ভালোবেসে ছিলেন বাংলার মানুষদের। এমন একজন মানুষকে বাদ দিয়ে বাংলাদেশের উন্নয়ন, সোনার বাংলা গঠন কখনই সম্ভব হয়নি। ৭৫’র পরবর্তী সময়ে জিয়াউর রহমান, এরশাদ ও খালেদা জিয়া অনেক চেষ্টা করেছেন কিন্তু হয়নি।
দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি স্বরুপ বকসী বাচ্চুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, দিনাজপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী, সাবেক হুইপ মিজানুর রহমান মানু, সাবেক এমপি আব্দুল লতিফ, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন দিনাজপুরের সাধারণ সম্পাদক ডা. বিকে বোস, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, কোতয়ালী আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমদাদ সরকার, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সাধারনণ সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল এবং দিনাজপুর প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য একরাম তালুকদার।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft