রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
বিয়েতে লাল শাড়ি পরায় কেন?
Published : Saturday, 6 April, 2019 at 6:03 AM
ফেসবুক শুদু সুমাজিক যুগাযোগ মাদ্যম একন এ কতা কলি ভুল হবে। ফেসবুক একন বিশ্বকোষ আর কারেন এফেয়ারসের জাগাও টাইনে নেচে। একনে যে কত জ্ঞাণী গুণী আর গবেষক পেত্তেকদিন কাজ কচ্চে তাই নিয়েই এট্টা গবেষুনা বিভাগ চালানো যায়। শিক্কে, স্বাস্ত্য, চিকিসসে, রাজনীতি, অত্থনীতি হ্যামন কোন জিনুস নেই যা ফেসবুকে পাওয়া যায় না।
কয়দিন আগে আমাগের এলেকায় বাপ্পী নামের এক ভাইপো ফেসবুকি এট্টা কোচ্চেন করিল। বিয়ের আগে গায় হলদি মাকায়, কিন্তুক ঝাল মাকায় না কেন? এই নিয়ে দেকিলাম বহুতজন বহুত মন্তব্য কইরেচে। সেদিন এক ভাইপো আমারে ডাইকে ধরে কচ্চে চাচা কওদিন বিয়েতে মাইয়েরা লাল শাড়ি পরে ক্যান? আমি কলাম হইয়ে ধইরে সবাই দেকে আসতেচে বিয়েতে লাল শাড়ি পড়ে, তাই স¹লি পরে। কতায় কয় দেকা দেকি চাষ, পাশাপাশি বাস। ভাইপো কলে, চাচা তুমি সেই বিটিবির যুগিই থাইকে গেলে। একন জলসার যুগ। আমি শুইনে কলাম, মুকির মদ্দি কতা জিয়োয় না থুইয়ে ঝাইড়ে কাশ কি কতি চাস। ভাইপো কলে, লাল রং হচ্চে বিপদের চিন্ন। কোন জাগায় বিপদের সংকেত দিতি লাল রঙের বিশেষ পতাকা উড়োয়। যিরাম ধরো সাগরে যখন বিপদ সংকেত চলতেচে, নৌকো টলার বা জাহাজ সাগরে নামা বারন, তকন লাল পতাকা ট্যাঙায় দেয়। আবার ধরো টেরেন যাচ্চে সুমকি। টেরেন লাইনির পাটি খুলা, কিম্বা বিরিজির নাটবল্টু খুইলে গেচে, তকন লাল কাপড় উচোয় ধরা মানে টেরেন থাইমে যাওয়া। আবার ধরো, রাজনীতিতি গিরিন সিগন্যাল আর রেড সিগন্যাল নামে কতা চাউর আচে। সবুজ সংকেত মানে আগোয় যাও, আর লাল সংকেত মানে পাছোয় আইসো। ভাইপোর যুক্তি শুইনে আকাটা মাইরে যাতি লাগলাম।
পরীক্কেয় প্রশ্ন কমন পড়লি যিরাম স¹লি গড়গড় কইরে লিকতি থাকে, ভাইপো সিরাম কতি থাকইলো। লাল শাড়ি পইরে নতুন বউ আনা মানে বিপদ সংকেত উড়োয় দিয়া। দূযযোগ মুকোবিলা কত্তি পাল্লি বাচপা, নায় খ্যায় হইয়ে যাবা। ঘুন্নি ঝড় উটলি যিরাম ঘরদোর লন্ডভন্ড হইয়ে যায়, সিরাম সুংসারও যে কোন সুমায় লন্ডভন্ড হইয়ে ভিটে উচ্চুন হইয়ে যাতি পারে যদি দূযযোগ ঠেকানো না যায়। ভাইপো শেস কতাডা কইয়ে গ্যালো একেবারে গুনীজনগের মতো। কলে বিয়েতে গায় হলদি মাকায় কারন ব্যাতা শুলো আর ঘায়গুতো খালি হলদি দিয়ে টিটমেন করা যায় সে কারনে। আগাম গায় হলদি মাইকে পোস্তুত থাকতি কয়। আর লাল কাপড় পইরে আসা হচ্চে পাকা ঝালের চিন্ন যা দিয়ে বুজোয়  ‘হা ভাই, আসিতেচে’।
ভাইপো চইলে গেলি তার কতার হেজেমানে কত্তে গুগলে তলাশ দিলাম। তাতে দেকলাম বেশী লোক দেইকেচে ইরাম তত্য হচ্চে বিপ্লবের প্রতীক লাল। ভালোবাসা ও যৌবনের প্রতীকও লাল। রাগের প্রতীক লাল। আবার শক্তির প্রতীকও লাল। অন্যসব রঙের চাইতি লাল রঙের তরঙ্গ দৈরঘো বেশি। এজন্যিই এই রঙ চোকি বেশি লাগে। সে কারনে অনেকের মতে বিয়েতে অন্য কারও চাইতি কনের ওপরই স¹লির নজর থাকে। আর লাল রঙ যেহেতু চোকি আগে বাদে তাই বিয়েতে কনে লাল শাড়ি পড়ে। আবার লাল রঙ যেহেতু ভালবাসার প্রতীক তাই বরের চোকি বউরে ভালবাসায় টইটুম্বুর কইরে দিতি লাল শাড়ি পরানো হয়। যে কারনে বিয়েতে সবার পচন্দ লাল বেনারসী।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft