মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
সর্বত্র ছিঃছিঃ রব, আটক হয়নি অভিযুক্ত
খড়কীর ৬ শিশুর উপর পৈশাচিকতার নায়ক আমিনুরের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি
অভিজিৎ ব্যানার্জী :
Published : Friday, 3 May, 2019 at 6:46 AM
খড়কীর ৬ শিশুর উপর পৈশাচিকতার নায়ক আমিনুরের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবিযশোর শহরের খড়কীতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৬ শিশু শিক্ষার্থীর উপর চলা পৈশাচিকতার ঘটনায় গোটা দেশে তোলপাড় শুরু হয়েছে। সম্প্রতি দেশে ঘটে যাওয়া আরও কয়েকটি ঘটনার সাথে যশোরের এই ঘটনা যোগ হওয়ায় নিন্দার ঝড় উঠেছে। সর্বত্র ছিঃ ছিঃ রব পড়েছে।
ঘটনার নায়ক অভিযুক্ত আমিনুর রহমানের (৪৫) সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করা হয়েছে। ঘটনাটি ট্যক অব দ্য কান্ট্রি হলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অভিযুক্তকে আটক করতে পারেনি যশোরের পুলিশ। তবে মামলা রেকর্ড হয়েছে।
ঘটনা ফাঁস হওয়ার পর থেকে এলাকার শিশুদের অভিভাবকসহ স্থানীয় লোকজনের মধ্যে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে।
মাওলানা শাহ আব্দুল করিম (রা.) খড়কী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েক শিক্ষক, স্থানীয় বাসিন্দা ও ভূক্তভোগী শিশুদের অভিভাবকরা জানান, খড়কী দক্ষিণপাড়া পীরবাড়ি এলাকার আবু হানেফের ছেলে আমিনুর রহমান বহু বিতর্কিত ও দুষ্টু প্রকৃতির। সে ৪ শিশুকে পর্যায়ক্রমে ধর্ষণ করেছে। একই সাথে ২ শিশু শিক্ষার্থীর উপর জবরদোস্তি করেছে। ওই স্কুলের দ্বিতীয় শ্রেণি থেকে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়–য়া ৬ শিশুকে ফুল, চকলেট, আম ও ক্যাটবেরিসহ নানা ধরনের খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে এই অপকর্ম করেছে।  গত জানুয়ারি থেকে চলতি মাসের ২৪ এপ্রিল বিকেল ৩ টার মধ্যে পর্যায়ক্রমে দফায় দফায় ওই ধর্ষণ কমকান্ড করেছে আমিনুর রহমান। স্কুলের অদুরে রেল লাইনের উত্তরে সেতুর বাগান বাড়ির একটি গোলপাতার সেমি পাকা ঘরে নিয়ে শিশুদের উপর পৈশাচিকতা চালিয়েছে আমিনুর রহমান। গত ২৪ এপ্রিল একটি শিশুর উপর নির্যাতন চালানোর ঘটনা ফাঁস হলে বিষয়টি স্কুল কর্তৃপক্ষসহ এলাকাবাসীর কানে যায়। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি, এমনকি এলাকায় শালিশ বৈঠক শুরু হলে তা পুলিশ পর্যন্ত গড়ায়। আর বিচারের দাবিতে রাস্তায় নেমে আসেন এলাকার অভিভাবকেরা।
খড়কী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফেরদৌসী আরা জানান, গত ২৮ এপ্রিল স্কুলের পরীক্ষায় ৫ শিশু অনুপস্থিত ছিল। কেন তারা অনুপস্থিত সে বিষয়ে খোঁজ নিতে গিয়ে প্রাথমিকভাবে ঘটনাটি জানতে পারেন। পরদিন স্কুল ম্যানেজিং কমিটিকে বিষয়টি জানিয়ে এ নিয়ে বৈঠক করা হয়। সেখানে ভূক্তভোগী ৩ শিশু আমাদের জানায়, আমিনুর তাদের খাবার কিনে দিয়ে, তাদের সাথে অনৈতিক কাজ করেছে। ঘটনার প্রেক্ষিতে সেই দিনই তাকে আহ্বায়ক করে স্কুল কমিটির সভাপতি শাহ মোহাম্মদ কামরুল হাসানকে প্রধান করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। ১ মে সকালে ওই কমিটি মিটিংও করেছে। তখন অভিভাবক ও স্থানীয় লোকজনসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন।
বিদ্যালয়ের সভাপতি শাহ মোহাম্মদ কামরুল হাসান জানান, তারা মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেবেন। কিন্তু এরই মধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হয়। পরে ভূক্তভোগী শিশুদের অভিভাবকদের পক্ষে থানায় এজাহার দেয়া হয়েছে।  এবং মামলা রেকর্ডও হয়েছে।
ভূক্তভোগী পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন, আমিনুর রহমানের ৩  মেয়ে রয়েছে। কয়েক দিন পর সে নানা হবে। আর এমন সময় সে শিশুদের ধর্ষণ করল। তারা এই নরপিশাচের প্রকাশ্যে ফাঁসি দাবি করেছে।
এ ব্যাপারে যশোর কোতোয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ  অপূর্ব হাসান গ্রামের কাগজকে জানিয়েছেন, ক্ষতিগ্রস্ত শিশুদের পরিবারের সদস্যরা থানায় এসেছিলেন। তাদের সাথে কথা বলা হয়েছে। ঘটনাটি নিয়ে বিস্তারিত খোঁজ-খবর নেয়া হয়েছে এবং মামলা রের্কড করা হয়েছে, যার নাম্বার ১। ঘটনাটি সত্য এবং লোমহষর্ক ও নিন্দনীয়। এ ঘটনার নায়ক আমিনুর পলাতক আছে। পলাতক ওই আসামি মোস্ট ওয়ান্টেড। তাকে খোঁজা হচ্ছে। বিভিন্ন ইউনিট কাজও করছে। দ্রুতই তাকে আটক করা সম্ভব হবে বলে তার দাবি। এ ঘটনায় আমিনুরের সাথে আর কেউ জড়িত কিনা তাও খোঁজ নেয়া হচ্ছে।
এদিকে ২ মে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নুসরাত জাবিন নিম্মীর আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে ভূক্তভোগী ৬ শিশু। তারা ঘটনার বর্ণনাও দিয়েছে আদালতের সামনে।  একইদিন তাদের মেডিকেল সম্পন্ন হয়েছে যশোর আড়াইশ’ শয্যা বিশিষ্ট জেনালের হাসপাতালে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft