সোমবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
যমেক হাসপাতালে সকালে যাদের বিরুদ্ধে অভিযান বিকেলেই তাদের দৌরাত্ম্য!
কাগজ সংবাদ :
Published : Sunday, 7 July, 2019 at 1:18 AM
যমেক হাসপাতালে সকালে যাদের বিরুদ্ধে 
অভিযান বিকেলেই তাদের দৌরাত্ম্য!যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অভিযান চালিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুরুল ইসলাম বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স, দালাল, অবৈধ স্থাপনা ও ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের কাছ থেকে ২১ শ’ টাকা জরিমানা আদায় করেন। কিন্তু অভিযানের ঘণ্টা খানেক পর ফের হাসপাতালের ভিতর বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স চলাচল, দালালদের দৌরাত্ম্য ও হাসপাতাল গেটে দোকান স্থাপন করে আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গলী দেখায়। এসব কর্মকা-ে তাদের ক্ষমতার উৎস নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। 
আদালতের পেশকার শেখ জালাল উদ্দিন জানিয়েছেন, শনিবার দুপুর সাড়ে তিনটায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে হাসপাতাল চত্বরে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় হাসপাতালের প্রধান ফটকের বাম পাশের দু’টি দোকান থেকে গ্যাস সিলিন্ডার জব্দ করা হয় ও ডান পাশের তিনটি টোঙ দোকান থেকে দুশ’ করে ছয়শ’ টাকা জরিমানা করে তা আদায় করা হয়। দীর্ঘদিন সরকারি হাসপাতালে বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স স্ট্যান্ড বানিয়ে ব্যবসা করে আসছিল একটি সিন্ডিকেট। অভিযান পরিচালনার সময় একটি অ্যাম্বুলেন্স থেকে পাঁচশ’ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। 
হাসপাতাল চত্বরে দালালদের দৌরাত্ম্য নতুন কিছু নয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসন একাধিকবার পদক্ষেপ নিলেও সব চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। অভিযান চলাকালীন হাসপাতাল চত্বর থেকে রোগী নিয়ে যাওয়ার সময় দু’দালালকে আটক করে দুশ’ করে চারশ’ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধিরা মটরসাইকেল রাখার কারণে হাসপাতাল চত্বরে ও বাইরে যানজট সৃষ্টি হয়। অভিযান চলাকালে তিন ওষুধ কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধিকে মটরসাইকেল রাখার দায়ে দুশ’ করে ছয়শ’ টাকা জরিমানা করে তা আদায় করা হয়। আদালত চলাকালে হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। 
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান টের পেয়ে হাসপাতালে অবস্থানরত দালাল, বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স চালক ও ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা পালানোর জন্যে দৌঁড়াদৌঁড়ি শুরু করে। এ সময় হাসপাতাল মর্গের পাশে কয়েকজন অ্যাম্বুলেন্স চালককে পালিয়ে থাকতেও দেখা যায়। বেশ কয়েকজন দালাল পালিয়ে যায় প্রাচীর টপকে। কিন্তু বিকেলেই ফিরে আসে পূর্বের অবস্থা। অবৈধভাবে অ্যাম্বুলেন্স স্ট্যান্ড গড়ে তোলে চালকরা। কয়েকজন দালালকে হাসপাতালে ঘোরাঘুরি করতে দেখা যায়। সাধারণ মানুষ তাদের কর্মকা- দেখে হতবাক হয়ে পড়েন। 
উল্লেখ্য, ৪ জুলাই যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বিভিন্ন অনিয়মের ব্যাপারে কঠোর হাতে দমনের কথা জানান।  





সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft