শিরোনাম: মির্জা ফখরুলের কাণ্ডজ্ঞানহীন বক্তব্যে জাতি হতাশ : কাদের       ব্যবসায়ী ও ‍উদ্যোক্তাদের কম সুদে ঋণ দিন : বিএনপি       চীনকে সংহতি জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠি       যাত্রীবাহী লঞ্চে হচ্ছে আইসোলেশন সেন্টার       মাস্ক ছাড়া বের হতে নিষেধ করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী       করোনা মোকাবিলায় জাতীয় ঐক্যের ডাক বিএনপির       ফ্রান্সের ছয় শতাধিক সেনা করোনায় আক্রান্ত       চাঁদপুর মতলবে করোনা লক্ষণে নারীর মৃত্যু : ৫ বাড়ি লকডাউন       রাজশাহীতে একজন নার্সসহ ১২ জন করোনাভাইরাসে আক্রন্ত সন্দেহে ভর্তি       মালয়েশিয়ায় ৪০ হাজার মানুষের করোনায় আক্রান্তের সম্ভবনা, ডিআইজি      
মৃত ভেবে চিতাবাঘের ছবি তুলতে গিয়ে...
কাগজ ডেস্ক :
Published : Monday, 19 August, 2019 at 8:56 PM
মৃত ভেবে চিতাবাঘের ছবি তুলতে গিয়ে...একটি চিতাবাঘ রাস্তার ধারে পড়ে ছিল। বেশ খানিকক্ষণ কেটে গেলে নড়াচড়া করছিল না। তাতেই সাহস বাড়ে উৎসাহী জনতার। তারা ভেবেছিল চিতাবাঘটি মারা গেছে। তাই ক্যামেরা নিয়ে ছবি তুলতে গেলেই ঘটে বিপত্তি। আচমকাই উৎসাহী জনতার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে চিতাবাঘটি।
আজ সোমবার সকালে পশ্চিমবঙ্গের আলিপুরদুয়ারে একটি চা বাগানের কাছে ঘটনাটি ঘটেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে রাস্তা পার হওয়ার সময় মোটরসাইকেল আঘাতে চিতাবাঘটিকে রাস্তার পাশের ছিটকে পড়ে।
ঘটনার পর চা বাগানের শ্রমিকরা ওই রাস্তার ধারে ভিড় জমাতে শুরু করেন। পথচলতি মানুষও সেখানে জড়ো হন। নড়াচড়া না করায় চিতাবাঘটি মারা গেছে বলে মনে করেন তারা। তাই ছবি তোলার লোভ সামলাতে না পেরে ধীরে ধীরে ‘মৃত’ চিতার কাছে এগোতে শুরু করেন।
পাশাপাশি গেলেই তাদেরকে আক্রমণ করে বসে চিতাবাঘটি। কাছে থাকা একজনের কনুই কামড়ে ধরে তাকে টেনে নিয়ে যায়। তবে চিতাবাঘটি গুরুতর জখম থাকায় জীবন দিতে হয়নি চা বাগানে গাড়িচালক গোপাল চন্দকে।
খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছান বন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। জাল এনে এবং ওষুধ ব্যবহার করে চিতাবাঘটিকে উদ্ধার করে স্থানীয় ‘লেপার্ড রেসকিউ সেন্টারে’ নিয়ে যান তারা। সেখানে চিতাবাঘটির চিকিৎসা শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft